পরীক্ষায় খারাপ ফল করেছেন। এর জন্য প্রেমিকাকে দায়ী করলেন ২১ বছর বয়সী এক যুবক। বললেন, প্রেমিকার সঙ্গে প্রেম করতে গিয়ে তিনি খারাপ ফল করেছেন। এ জন্য পুরো পড়াশোনায় যে খরচ হয়েছে তা পরিশোধ করতে হবে প্রেমিকাকেই। এ ছাড়া ওই প্রেমিকাকে তিনি ভীতি প্রদর্শন করেছেন।
এমন সব অভিযোগে তার প্রেমিকা পুলিশের কাছে হাজির হয়েছেন। ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের আওরঙ্গবাদে। সেখানে ব্যাচেলর অব হোমিওপ্যাথিক মেডিসিন অ্যান্ড সার্জারি (বিএইচএমএস) পড়াশোনা করেন ২১ বছর বয়সী ওই যুবক। তার বাড়ি বীড জেলায়।

গত বছর তিনি ওই কোর্সে ভর্তি হন। তার প্রেমিকা তারই সহপাঠী। তার সঙ্গে প্রেম করতে গিয়ে তিনি পড়াশোনায় মন দেননি। ফলে প্রথম বর্ষের পরীক্ষায় অকৃতকার্য হন। এ জন্য চার বছরের ওই কোর্সের দ্বিতীয় বর্ষে উন্নীত হতে পারেননি তিনি। এতে হতাশ হয়ে পড়েন ওই যুবক। খারাপ ফলের জন্য তিনি প্রেমিকাকে দায়ী করেন। এ জন্য তার পিতা তার পড়াশোনার জন্য প্রথম বর্ষে যে খরচ করেছেন সেই অর্থ দাবি করেন প্রেমিকার কাছে।

এমন অবস্থায় তার প্রেমিকা তার সঙ্গে কথা বলা বন্ধ করে দেন। তার থেকে দূরে দূরে থাকা শুরু করেন। কিন্তু মোবাইল ফোনে তাকে অব্যাহতভাবে ম্যাসেজ পাঠিয়ে যেতে থাকেন ওই যুবক। বার বার চেষ্টা করেন ওই তরুণীকে ফোন করার। কিন্তু তিনি ফোন ধরেন না।

এতে ওই প্রেমিকের মধ্যে ধারণা হয় যে, তাকে এড়িয়ে চলছে তার প্রেমিকা। ফলে তিনি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের আশ্রয় নেন। এতে প্রেমিকার ও তার পিতা, তাদের পরিবার নিয়ে পোস্ট দিতে থাকেন। এক পর্যায়ে তিনি হুমকি দেন, ওই প্রেমিকার ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে পোস্ট করে দেবেন। এতে লজ্জিত হন ওই প্রেমিকা। পরে তিনি পুলিশে অভিযোগ করেন।

সূত্র:somoyerkonthosor