বাংলাদেশের ক্ষমতাসীন রাজনৈতিক দলের মধ্য অন্যতম একটি দল আওয়ামীলীগ। এই দল বাংলাদেশের বহু পুরানো রাজনৈতিক দল। বর্তমান সময়ে এই দল বাংলাদেশ সরকারের দায়িত্ব পালন করছেন। এই ক্ষমতাসীন রাজনৈতিক দলের একজন রাজনীতিবীদ ওবায়দুল কাদের। তিনি ছাত্র জীবন থেকে রাজনীতির সঙ্গে যুক্ত। এবং বর্তমানে আওয়ামীলীগ দলের গুরুত্বপূর্ন পদে দায়িত্ব পালন করছেন তিনি। এছাড়াও তিনি বর্তমানে বাংলাদেশ সরকারের সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করছেন।
চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে কাউন্সিলর পদে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থীদের নিয়ে এত আলোচনা কিংবা উদ্বেগের কোনো কারণ নেই বলে উল্লেখ করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। রোববার (৮ মার্চ) চট্টগ্রামের পতেঙ্গায় নির্মাণাধীন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান টানেল নির্মাণকাজ পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের এ কথা বলেন তিনি।

আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, ’ঢাকার সিটি নির্বাচনেও এ সমস্যা (দলীয় বিদ্রোহী) হয়েছিল। কিন্তু শেষে সেটিও সমাধান হয়েছে। তাই বিদ্রোহীদের নিয়ে এত আলোচনা করার সুযোগ নেই। খুব দ্রুত সময়ের মধ্যে চট্টগ্রাম নির্বাচনের এ সমস্যার সমাধান করা হবে।’ কর্ণফুলী টানেলে কর্মরত চীনা নাগরিকদের বিষয়ে তিনি বলেন, ’করোনাভাইরাসের প্রভাব টানেলে কর্মরতদের ওপর পড়ার সুযোগ নেই। কারণ ২৯৩ চীনা নাগরিকের মধ্যে নববর্ষের ছুটিতে ছিল ৭৩ জন। ছুটি থেকে ফিরে এসেছে ৪৫ জন। তাদের মধ্য থেকে ২৮ জন সব ধরনের পরীক্ষা শেষ করে কাজে যোগ দিয়েছেন। বাকি ১৭ জন এখনও প্রক্রিয়াধীন।’ এ সময় তথ্যমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ, চট্টগ্রামের মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, ক্ষমতাসীন আওয়ামীলীগ দল বাংলাদেশের উন্নয়নের জন্য নানা ভাবে কাজ করছে। এবং বিশ্ব দরবারে বাংলাদেশকে প্রতিষ্ঠিত করার জন্য নানা পদক্ষেপ গ্রহন করেছে। এবং বর্তমান সময়ে বাংলাদেশ বিশ্ব দরবারে উন্নয়নের রোল মডেল হিসাবে বিশেষ স্বীকৃতি অর্জন করতে সক্ষম হয়েছে। এই ক্ষমতাসীন রাজনৈতিক দলের মধ্যে নানা বিষয় নিয়ে নেতাকর্মীদের মাঝে ভিন্নতা রয়েছে।