কারাবন্দি খালেদা জিয়ার চিকিৎসা হচ্ছে না বলে অভিযোগ তুলেছেন গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী। তিনি বলেন, যদি মাথা ব্যথার জন্য পা টিপে দেয়া হয়, তাহলে কি মাথা ব্যথা কমবে? না কমবে না। খালেদা জিয়ার ক্ষেত্রে সেই কাজই করছে সরকার।
সোমবার জাতীয় প্রেসক্লাবে ’আদর্শ নাগরিক আন্দোলন’ আয়োজিত আলোচনা সভায় এসব কথা বলেন তিনি।

জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেন, খালেদা জিয়ার মূল চিকিৎসা হলো তাকে জেল থেকে মুক্তি দেয়া, পৃথিবীর আলো বাতাস দেখতে দেয়া। এটি হলো তার মূল চিকিৎসা। সেটা না করে যদি মাথা ব্যথার জন্য পা টিপে দেয়া হয়, তাহলে কি মাথা ব্যথা কমবে?

তিনি বলেন, বেগম জিয়ার দ্বিতীয় চিকিৎসা হবে একাকিত্ব দূর করা। এজন্য কোন চিকিৎসককে যুক্ত করা হয়নি। এছাড়া উনার যে মানবাধিকার, নৈতিক অধিকার আছে, তাকে আর কিছু না হোক জামিনে মুক্তি দেয়া হোক। গণতন্ত্র না থাকলে বিচার বিভাগের অবনতি হবে। বিচার বিভাগের বিবেকহীনতা বলেই এ জাতীয় ঘটনা। বিচারকদের মনে রাখতে হবে, কখনও না কখনও আপনাদের জনতার আদালতে দাঁড়াতে হবে।
প্রধানমন্ত্রীর প্রতি অনুরোধ জানিয়ে তিনি বলেন, আমরা চাই বাংলাদেশ সুখের সমৃদ্ধির হোক। আপনার ভালো কাজের জন্য আপনাকে দেশবাসী স্মরণ করুক। আজকে রাজনৈতিক বন্দিদের মুক্তি দিন, খালেদা জিয়ার অন্ততপক্ষে জামিনের ব্যবস্থা করুন। বিচার বিভাগকে আওয়ামী লীগের অধীনস্থ করবেন না।

তিনি বলেন, আমাদের সবার জন্য মঙ্গল হবে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করা। তার প্রথম শর্ত এদের মুক্তি দিন। দ্বিতীয়ত অবিলম্বে একটি নির্বাচনের ব্যবস্থা করুন। তাতে হারলেও আপনার জয় হবে। তখন আপনি বুক ফুলিয়ে বলতে পারবেন। এখন পিতাকে বিক্রি করে কতদিন চলবেন?

সূত্র:বিডি প্রতিদিন