বাংলাদেশ হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের একজন সাংগঠনকি সম্পাদক প্রিয়া সাহা। বাংলাদেশ থেকে ৩ কোটি ৭০ লাখ ধর্মীয় সংখ্যালঘু অদৃশ্য তথা গুম হয়ে গেছে, যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের কাছে গিয়ে এমন কথা বলে ব্যাপক সমালোচনার মুখে পড়েছেন। বাংলাদেশ নিয়ে ভয়ংকর মিথ্যাচার করেছেন বাংলাদেশি নারী প্রিয়া সাহা। এ নিয়ে সরকারের উচ্চ মহল থেকে শুরু করে দেশের সকল মানুষের মধ্যে চলছে আলোচনা-সমালোচনার ঝড়। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে এ বিষয় নিয়ে একটি স্ট্যাটাস দিয়েছেন গোলাম মাওলা রনি।
পাঠকদের জন্য সেই স্ট্যাটাসটি হুবুহু তলে ধরা হলো-

প্রিয়া দেবনাথকে নিয়ে সারা দেশে যে হৈ চৈ শুরু হয়েছে তাতে প্রিয়াই লাভবান হবেন ! আমার বিশ্বাস প্রিয়া এবং তার গড ফাদার বা গড মাদাররা পরিকল্পনা করেই কর্মটি করেছেন !

অন্যদিকে, যারা উত্তেজনায় উথাল পাথাল করে মরে গেলুমগো, দেশ গেলোগো, স্বাধীনতা শেষ, ইজ্জত বুঝিগো আর রোইলোনাগো বলে চিৎকার করছেন তারা সম্ভবত প্রিয়ার কপাল খুলে দিচ্ছেন !

প্রিয়া এখন স্বপরিবারে ট্রাম্পের দেশের মেহমান হবেন বিনা বাধায় ! তার পিছনে যদি প্যান ইহুদি বা ইন্দো ইহুদি চক্রের মদদ থাকে তবে সে নোবেল প্রাইস ও পেয়ে যেতে পারে !

রঙের দুনিয়াতে কখন কি হয় তা কেবল বিধাতাই বলতে পারেন !


গোলাম মাওলা রনি বাংলাদেশি রাজনীতিবিদ ও সাবেক সংসদ সদস্য। তিনি ২০০৮ সালের নির্বাচনে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের মনোনয়নে পটুয়াখালী-৩ আসন থেকে জাতীয় সংসদের সদস্য নির্বাচিত হন। পরবর্তীতে ২০১৮ সালের ২৬শে নভেম্বরে তিনি বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দলে (বিএনপি) যোগদান করেন।