অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার (প্রশাসন) ওয়ারী, ইফতেখায়রুল ইসলাম। তিনি সংস্কৃতিমনা, ছাত্র থাকাকালীর বিতর্ক, আবৃত্তিসহ নানা সাংস্কৃতিক কর্মকাণ্ডে জড়িত ছিলেন। তিনি একজন মানবিক পুলিশ। কাজ করেন মানুষের জন্য। তাঁর ফেসবুকের পোস্ট বেশ জনপ্রিয়। তারই ধারাবাহিকতায় একটি নতুন পোস্ট পাঠকদের জন্য তুলে ধরা হল। তিনি তার পোস্টে লিখেছেন, আমার বন্ধু রাশেদ, একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে কর্মরত। সবকিছুতেই অস্থির। ওর ভাষ্যমতে বিশ্বের কোথাও নাকি কিছুই ঠিক নাই। আমরা নাকি আরও ঠিক নাহ। এখানে আমরা নাকি মাথা ব্যথা হলেই ব্যথার ওষুধ খাই এর আগে নয়। প্রতিরোধী ব্যবস্থা কম আর কি।
ওর ধারণা আমাদের মত সকল বিষয়ে সবজান্তা শ্রেণি পৃথিবীর আর কোথাও নেই...। আমরা নাকি কী চাই, সেটাও জানি না! আমরা যাহা চাই, তাহা নাকি ভুল করে চাই...

কী বিপদের কথা.... আমরা নাকি সবই জানি তাও কখনো মূলে আঘাত করতে পছন্দ করিনা। যারা সত্যিকার অর্থে অনেক জানেন তারাও নাকি অনেক বিষয়ে গভীরে যেতে চান না, বোঝেন না!
কে কি জানে, কে কি জানে না? কার কী কাজ, কার কি নয় তাও নাকি জানি না আমরা।

একটু আগে যা চাই, একটু পরেই নাকি তা চাই না আমরা। রাশেদ তুই পালিয়ে যা, এখন সময় তোর না। অমর একুশে গ্রন্থমেলায় ও প্রকাশিত হয়েছে ইফতেখায়রুল ইসলামের লেখা বই। তার প্রকাশিত প্রথম বইয়ের নাম ’যাপিত জীবনের কড়চা’। তার এই লেখা বইটি সমাজ জীবনের নানা বাস্তবতার আলোকে লেখা।

(ফেসবুক থেকে সংগৃহীত)
লেখক:অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার (প্রশাসন), ওয়ারী।