রুবানা হক বাংলাদেশী নারী ব্যবসায়ী ও কবি। তিনি মোহাম্মদী গ্রুপের বর্তমান ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও বাংলাদেশ পোশাক প্রস্তুতকারক ও রপ্তানিকারক সমিতি (বিজিএমইএ) এর নির্বাচিত প্রথম নারী সভাপতি। তিনি ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের সাবেক মেয়র আনিসুল হকের স্ত্রী। তিনি ২০১৩ ও ২০১৪ সালে পরপর দুবার "বিবিসি ১০০ নারী" নিবন্ধে তার স্থান পেয়েছিলেন। ২০০৬ সালে তিনি কবিতার জন্য সার্ক সাহিত্য পুরস্কার লাভ করেন। সম্প্রতি, টি শার্ট সেলাই করে গিনেস বুকে নাম লেখানোর পরিকল্পনা করেছে বাংলাদেশ। টি শার্ট সেলাইয়ের দায়িত্ব পড়েছে বিজিএমইএকে। মূলত আন্তর্জাতিক শ্রম সংস্থা (আইএলও) প্রতিষ্ঠার শতবর্ষ পালন উপলক্ষে গিনেস রেকর্ড ভাঙতে বাংলাদেশ বিশ্বের সর্ববৃহৎ টি-শার্ট সেলাইয়ের এই পরিকল্পনাটি করেছে।
বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম রফতানিকারক বাংলাদেশ পোশাক শিল্পকে তুলে ধরার জন্য বাংলাদেশ গার্মেন্ট প্রস্তুতকারক ও রফতানিকারক সমিতি (বিজিএমইএ) সূতি কাপড়ের এই টি-শার্ট সেলাইয়ের করবে। এ বিষয়ে বিজিএমইএর সভাপতি ড. রুবানা হক জানান, আইএলও-এর প্রস্তাব পাওয়ার ব্যাপারে তারা প্রক্রিয়া শুরু করেছেন। ভারতের মুম্বাইয়ের প্লাস্টইন্ডিয়া ফাউন্ডেশনের রেকর্ড ডিঙ্গিয়ে বাংলাদেশ নতুন রেকর্ড করতে যাচ্ছে। এই প্রতিষ্ঠানটি ২০১৮ সালের ৫ জানুয়ারি ৯৬.৮৬ মিটার (৩১৭.৭৮ ফুট) দীর্ঘ ও ৬৯.৭৭ মিটার (২২৮.৯০ ফুট) প্রশস্থের সর্ববৃহৎ টি-শার্ট সেলাই করে গিনেস রেকর্ড করে। বিজিএমইএ পরিচালক (শ্রম) রেজওয়ান সেলিম জানান, সূতি বস্ত্র ব্যবহার করে ৩৫০ ফুট দৈর্ঘের এবং ২৫০ ফুট প্রস্থের টি-শার্ট সেলাইয়ের দায়িত্বভার পেয়েছে পলমল। এটি হবে ভারতের তৈরি টি-শার্টের চেয়ে এক সাইজ বড়। তিনি আরো বলেন, বাংলাদেশের পোশাক প্রস্তুতকারক প্রতিষ্ঠান পলমল এই টি-শার্ট সেলাইয়ের খরচ বহন করবে। এ উপলক্ষে আইএলও আয়োজিত বিশাল অনুষ্ঠান ২২ অথবা ২৪ অথবা ২৮ নভেম্বর বাংলাদেশে অনুষ্ঠিত হবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং আইএলও সভাপতি এ অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকবেন বলে আশা করা হচ্ছে। প্রসঙ্গত, গিনেস বিশ্ব রেকর্ড যা ২০০০ সালে থেকে গিনেস বুক অফ ওয়ার্ল্ড রেকর্ডস নামে পরিচিত। এটি একটি বার্ষিক প্রকাশনাবিশেষ। এতে বিশ্বের যাবতীয় রেকর্ডসমূহ নথিবদ্ধ থাকে।