আনুষ্ঠানিক রাজ্যাভিষেকের মাত্র কয়েক দিন আগে বিয়ে করলেন থাইল্যান্ডের রাজা মহা বজিরালংকর্ণ। বুধবার ব্যক্তিগত নিরাপত্তারক্ষী বাহিনীর উপপ্রধানের সঙ্গে তিনি বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন। স্ত্রীকে ’রানি সুতিদা’ উপাধি দিয়েছেন রাজা।
থাইল্যান্ডের রয়্যাল গেজেটে রাজবাড়ির বিয়ের অনুষ্ঠানের খবর প্রকাশিত হয়েছে। এছাড়া জাতীয় টিভি চ্যানেলে সম্প্রচারিত হয়েছে অনুষ্ঠানের ভিডিও ক্লিপিংস।

২০১৬ সালে থাইল্যান্ডের পূর্ববর্তী রাজা ভূমিবল অদুল্যদেজের মৃত্যুর পরে সে বছরের অক্টোবর মাসে দেশের সাংবিধানিক রাজা হিসেবে কার্যভার গ্রহণ করেন বছর ছেষট্টির বজিরালংকর্ণ। আগামী শনিবার ব্রাহ্মণ ও বৌদ্ধ ধর্মমতে তার পরম্পরাগত অভিষেক হওয়ার কথা। অভিষেকের পরে তাকে নিয়ে ব্যাংকক শহরে বিরাট শোভাযাত্রা বেরোনোর কথাও রয়েছে।

২০১৪ সালে থাই এয়ারওয়েজের প্রাক্তন ফ্লাইট লেফটেন্যান্ট সুতিদা তিদজাইকে দেহরক্ষী বাহিনীর উপপ্রধান হিসেবে নিয়োগ করেন রাজা। এই সময় থেকেই রাজার সঙ্গে সুতিদার প্রেম নিয়ে শুরু হয় জল্পনা, যদিও তাকে কখনই স্বীকৃতি দেয়নি রাজ পরিবার। ২০১৬ সালের ডিসেম্বর মাসে সুতিদাকে রয়্যাল থাই সেনাবাহিনীর জেনারেল পদে বহাল করেন রাজা। ২০১৭ সালে তাকে রাজার ব্যক্তিগত নিরাপত্তা বাহিনীর উপপ্রধান পদে উন্নীত করা হয়।

এর আগে তিন বার বিয়ে এবং সমসংখ্যক বিবাহ বিচ্ছেদ ঘটেছে রাজা বজিরালংকর্ণের জীবনে। পূর্বতন স্ত্রীদের সূত্রে তার সাতটি সন্তানও রয়েছে।

সূত্র:সংবাদসংস্থা