অনেকদিন পর মেয়ে-জামাইয়ের বাড়িতে গিয়ে হুলুস্থুল আপ্যায়িত হলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আজ বুধবার ফরিদপুরে আওয়ামী লীগের জনসভাস্থলে যোগ দেয়ার আগে মেয়ে সায়মা ওয়াজেদ পুতুলের ফরিদপুরের শ্বশুরবাড়িতে যান প্রধানমন্ত্রী।
সেখানে খাওয়া-দাওয়া ও জোহরের নামাজ আদায়ের পর একটু বিশ্রামও নেন শেখ হাসিনা। এরপর সমাবেশে যোগ দেয়ার জন্য সরকারি রাজেন্দ্র কলেজের উদ্দেশ্যে রওয়ানা হন তিনি।
এর আগে বেলা পৌনে একটার দিকে প্রধানমন্ত্রী তার বেয়াই শ্বশুর স্থানীয় সরকার পল্লী উন্নয়ন ও সমবায়মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার খন্দকার মোশাররফ হোসেনের সদর উপজেলার বদরপুরের বাড়ি আফসানা মঞ্জিলে পৌঁছান। এ সময় মেয়ে পুতুল ও তার স্বামী খন্দকার মাশরুর হোসেন তাকে স্বাগত জানান।
সেখানে পৌঁছে জোহরের নামাজ আদায়ের পর প্রধানমন্ত্রী দুপুরের খাবার খেতে বসেন। খাবার তালিকায় ছিলো ভাত, কয়েক পদের ভর্তা, সবজি, মুরগির কোরমা, খাসি ও গরুর মাংস, সরষে ইলিশ, রুই মাছের কালিয়া, চিতল মাছের কোপ্তা, বোয়াল, কই, শিং, আইড়, চিংড়ি ও কাঁচকি মাছের চচ্চড়ি এবং সবশেষে দই ও পায়েস। একমাত্র মেয়ের এমন আপ্যায়নে প্রধানমন্ত্রী আপ্লুত হন।
এরপর খাওয়া-দাওয়া শেষে বেলা সোয়া তিনটার দিকে প্রধানমন্ত্রী সরকারি রাজেন্দ্র কলেজের উদ্দেশ্যে রওয়ানা হন।
এই সফরে প্রধানমন্ত্রীর সফরসঙ্গী হিসেবে রয়েছেন প্রধানমন্ত্রীর সফরসঙ্গী হিসেবে রয়েছেন জাতীয় সংসদের উপনেতা সৈয়দা সাজেদা চৌধুরী এমপি, বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ এমপি, আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের এমপি, সংস্কৃতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর এমপি, আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য কাজী জাফরউল্লাহ, আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল আলম হানিফ এমপি, ডা. দীপু মনি এমপি ও আবদুর রহমান এমপি, বাগেরহাট-১ আসনের সংসদ সদস্য শেখ হেলাল প্রমুখ।

24livenewspaper