শাকিব খান বাংলাদেশের বহুল আলোচিত ও জনপ্রিয় অভিনেতা। তিনি বর্তমান সময়ে বাংলাদেশের সর্বোচ্চ পারিশ্রমিক গ্রহীতা। তিনি তার অভিনয়ের মধ্য দিয়ে অর্জন করেছেন অনেক সফলতা এবং সম্মাননা। এবং অর্জন করতে সক্ষম হয়েছেন বাংলাদেশের জাতীয় চলচ্চিত্র পুরষ্কার। তিনি বাংলাদেশের অসংখ্য সিনেমায় অভিনয় করেছেন। এছাড়াও তিনি ভারতের পশ্চিমবঙ্গের বাংলা সিনেমায় অভিনয় করেছেন। ভারত- বাংলাদেশ যৌথ প্রযোজনায় নির্মিত হয়ে থাকে অনেক সিনেমা। শাকিব খান ওপার বাংলাতেও অর্জন করেছেন ব্যাপক দর্শক জনপ্রিয়তা। এছাড়াও আরো অনেক অভিনেতা-অভিনেত্রী রয়েছে তারা দুই বাংলা সিনেমায় অভিনয় করে থাকে।
’বীর’ ছবির শুটিং শুরুর সময় থেকে মুক্তির দিনক্ষণ গুনছিলেন শাকিব খানের ভক্তরা। শুটিং শেষে শাকিব খান বলছিলেন ফেব্রুয়ারিতে ছবিটি মুক্তি দিতে চান তিনি। এর মধ্যে এমনও শোনা গেছে, ফেব্রুয়ারি নয়, মার্চেও মুক্তি পেতে পারে ছবিটি। সেন্সর ছাড়পত্র হাতে পেয়ে দেশের সিনেমার জনপ্রিয় এই নায়ক বলেন, ’এই ভালোবাসা দিবসেই "বীর" নিয়ে আমরা আসছি।’ মানে ১৪ ফেব্রুয়ারি দেশের বেশির ভাগ প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পাবে শাকিব খান ও বুবলী অভিনীত ’বীর’। কাজী হায়াৎ পরিচালিত ৫০তম ছবি ’বীর’। শাকিব খানের প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান এসকে ফিল্মস থেকে তৈরি এই ছবিটি গতকাল মঙ্গলবার সন্ধ্যায় সেন্সর বোর্ডের সদস্যরা দেখে রাতেই তাঁদের মতামত জানিয়ে দেন। সেন্সর বোর্ড সদস্যদের পক্ষ থেকে প্রযোজকনেতা খোরশেদ আলম খসরু বলেন, ছবিটি আমাদের ভীষণ ভালো লেগেছে, তাই আমরা আনকাট ছাড়পত্র দিয়েছি। সেন্সর ছাড়পত্র পাওয়ায় দর্শকদের জন্য তৈরি ছবিটি দর্শকের কাছে পৌঁছে দেওয়ার ক্ষেত্রে আর কোনো ধরনের বাধা থাকল না।

সেন্সর বোর্ডের সদস্য খোরশেদ আলম আজ বুধবার সকালে বলেন, ছবিটি এককথায় অসাধারণ। শতভাগ মৌলিক গল্পের ছবি। পরিচালক কাজী হায়াতের তো আলাদা একটা ব্যাপার আছে। এই ছবিতে অনেক মেসেজ দেওয়ার চেষ্টা করেছেন তিনি। বর্তমান সময়ের একটি সুন্দর চিত্র তুলে ধরার চেষ্টা করা হয়েছে। ২ ঘণ্টা ২২ মিনিটের ছবিটি দেখে এতটাই ভালো লেগেছে যে কোনো ধরনের কর্তন ছাড়াই ছাড়পত্র দিতে বাধ্য হয়েছি। সেন্সর বোর্ডের সদস্য হিসেবে সাম্প্রতিক সময়ে আরও ছবি দেখেছেন। সেদিক থেকে ’বীর’ কেন আলাদা? আমাদের সমাজব্যবস্থার একটা সুন্দর চালচিত্র তুলে ধরা হয়েছে। নতুন এক শাকিব খানকে সবাই "বীর" ছবিতে দেখতে পাবেন, যা নিকট অতীতে কেউ দেখেননি। এই ছবিতে শাকিবের গেটআপ চমকে দেওয়ার মতো। নিঃসন্দেহে দর্শকের খুব মন কাড়বে। শাকিব তো একটা কস্টিউমে পুরো ছবিটি শেষ করেছেন। বললেন খোরশেদ আলম।

’বীর’ ছবির নায়ক ও প্রযোজক শাকিব খান বলেন, একটি ছবি তৈরির পর প্রথমেই সেন্সর বোর্ডের সদস্যরা দেখেন। তাঁরা ছবিটি দেখার পর যে মতামত দিয়েছেন, তা আমাকে আনন্দিত করেছে। দর্শকের পাশাপাশি তাঁরা সমালোচকের দৃষ্টিতে ছবিটি দেখেছেন। তাঁরা ছবিটির গল্প, নির্মাণশৈলী, অভিনয়, গান, লোকেশনসহ সবকিছুর ভূয়সী প্রশংসা করেছেন। মনে হয়েছে, "বীর" নিয়ে আমাদের পরিশ্রম কিছুটা সার্থক হয়েছে। বাকিটা প্রেক্ষাগৃহে মুক্তির পর দর্শকেরাই বলবেন। আমি আমার দর্শকের প্রতিক্রিয়ার জন্য অপেক্ষা করছি। শাকিব খান এ–ও বলেন, দর্শকদের ভালো সিনেমা উপহার দেওয়ার ইচ্ছা থেকে অভিনয়ের পাশাপাশি আমার প্রযোজনায় আসা। আমার প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান থেকে একেকটা একে রকম ছবি উপহার দেওয়ার চেষ্টা করেছি। কোনোটা গল্পের, কোনোটা মাল্টিকাস্টের। ছবি নির্মাণের পরিকল্পনা করার সময়ই মাথায় থাকে, সব শ্রেণির দর্শকেরা যেন ছবি দেখতে পারে। বছরে যতগুলো ছবি আমার প্রতিষ্ঠান থেকে তৈরি হবে, আশা করি এই ধারাবাহিকতা থাকবে। বছরব্যাপী নানা স্বাদের ছবি উপহার দিতে চাই।

যাঁরা মৌলিক গল্পের ছবি দেখতে ভালোবাসেন, শতভাগ দেশীয় গল্পের ছবি দেখতে চান, তাঁদের অনেক বেশি ভালো লাগবে ’বীর’ ছবিটি—এমনটাই জানালেন শাকিব খান। তিনি বলেন, আমার প্রতিষ্ঠানের ছবি বলেই বলছি না, সত্যিই এটি অন্য রকম এক গল্পের ছবি। আমি আমাকে একেবারে অন্য রকমভাবে উপস্থাপন করেছি। তা ছাড়া কাজী হায়াতের সিনেমার আলাদা একটা স্টাইল আছে, সেই স্টাইলটা সবার ভালো লাগবে। সব মিলিয়ে সেন্সর বোর্ডের সদস্যদেরও ছবিটি ভালো লেগেছে। মুক্তির পর দর্শকেরও ভালো লাগবে। ব্যবসায়িক সফলতার পাশাপাশি এ ছবিটি রাষ্ট্রীয় সম্মানও বয়ে আনবে বলে আমার বিশ্বাস। শাকিব খান ও বুবলী অভিনীত ’মনের মতো মানুষ পাইলাম না’ সর্বশেষ মুক্তিপ্রাপ্ত ছবি। গেল বছরের ১২ আগস্ট মুক্তির হিসাব ধরলে প্রায় ৬ মাস পর মুক্তি পাচ্ছে শাকিব ও বুবলীর নতুন কোনো ছবি। ছয় মাস পর প্রেক্ষাগৃহে ছবি মুক্তি পাচ্ছে শুনে আনন্দিত ছবির প্রধান চরিত্রের অন্যতম অভিনয়শিল্পী বুবলীও। তিনি বলেন, চমৎকার একটি গল্পের সিনেমা "বীর"। আমার অসম্ভব ভালোবাসার একটি সিনেমা। ছবির জন্য অনেক পরিশ্রম করেছি। এখন ছবিটি দর্শকের কাছে যাওয়ার জন্য পুরোপুরি তৈরি।

শাকিব খান জানান, খুব শিগগিরই ’বীর’–এর গান আর ট্রেলার প্রকাশ করা হবে এসকে ফিল্মসের অফিশিয়াল ইউটিউব চ্যানেলে। ছবিতে গান থাকছে চারটি। গানগুলোর সংগীত পরিচালনা করেছেন আহমেদ সাগীর, শওকত আলী ইমন ও কলকাতার আকাশ সেন। গানের শিল্পীরা হলেন মনির খান, কোনাল, ইমরান ও আকাশ মাহমুদ। গানের কথা লিখেছেন মুনশী ওয়াদুদ, কবির বকুল, ফয়সাল রাব্বিকীন ও কলকাতার প্রিয় চট্টোপাধ্যায়। ’বীর’ ছবির শুটিং শেষ হওয়ার আগেই গেল বছরের ১২ ডিসেম্বর ছবিতে শাকিব খানের চরিত্র সম্পর্কে ধারণা দিতে ফার্স্ট লুক প্রকাশিত হয়। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ফার্স্ট লুক প্রকাশের পরপরই প্রশংসিত হন শাকিব খান। ভক্ত থেকে শুরু করে চলচ্চিত্র জগতের অনেক তারকাই ’বীর’–এ শাকিব খানের এই লুকের প্রশংসা করেন। অভিনেতা ও সাংসদ ফারুকও জানিয়েছিলেন তাঁর মুগ্ধতার কথা।
’বীর’ ছবিতে শাকিব খান ও বুবলী ছাড়া অভিনয় করেছেন কাজী হায়াৎ, সাদেক বাচ্চু, মিশা সওদাগর, শবনম পারভীন, নাদিম, জাদু আজাদ, শিবা শানু, দুলারী প্রমুখ।

উল্লেখ্য, বর্তমান সময়ে বাংলাদেশের বিনোদন জগতের অবস্থা সংকটপন্ন। দিন দিন বন্ধ হয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশের সিনেমা হল গুলো। এই সংকট নিরসনের জন্য কাজ করছে বিনোদন অঙ্গনের সকল ব্যাক্তিরা। কাজী হায়াৎ বাংলাদেশের একজন খ্যাতিমান চলচ্চিত্র পরিচালক। এছাড়াও তিনি একজন অভিনেতা। তিনি বাংলাদেশের বেশ কয়েকটি সিনেমায় অভিনয় করেছেন। তিনি তার কাজের জন্য পেয়েছেন জাতীয় চলচ্চিত্র পুরষ্কার। তার অর্জনের ঝুলিতে রয়েছে ৯ টি জাতীয় চলচ্চিত্র পুরষ্কার। তিনি বাংলাদেশের একজন সফল পরিচালক হিসাবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করতে সক্ষম হয়েছেন।