নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জে শুটিং স্পটে চিত্র নায়ক ফেরদৌস ও নায়িকা পূর্ণিমা আহত হয়েছে। রোববার দুপুরে উপজেলার চরএলাহী ইউনিয়নে ওবায়দুল কাদের সৃজিত গাংচিল উপন্যাস অবলম্বনে নির্মিত গাংচিল সিনেমার শুটিং স্পটে নায়িকা পূর্ণিমা মোটর সাইকেল চালানোর সময় এ দুর্ঘটনা ঘটে।
নায়ক ফেরদৌস জানান, সিনেমার চরিত্রের একটি অংশে চিত্র নায়িকা পূর্ণিমা এনজিও কর্মির চরিত্রে এবং আমি সাংবাদিকের চরিত্রে অভিনয় করছি। চরিত্রের একটি অংশে, পূর্ণিমা’র মোটর সাইকেলের পিছনে বসে আমি এলাকা ঘুরে দেখার দৃশ্য ধারণ করার সময় মোটর সাইকেল নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে এ দুর্ঘটনা ঘটে। এ সময় মোটর সাইকেল আমাদের শরীরে চাপা দেয়।

তিনি আরও জানান,পরবর্তিতে শুটিং ইউনিটের সদস্যরা আমাদের উদ্ধার করে বসুরহাট সেন্ট্রাল হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হয়।
এ বিষয়ে জুনিয়র কনসালটেন্ট ডা.আ.ফ.ম আবদুল হক জানান, নায়ক ফেরদৌস ডান পায়ের গোড়ালির উপরে মাংসে আঘাত পায়। নায়িকা পূর্ণিমা ডান হাতের কাধে এবং কনুতে হালকা ব্যাথা পায়। বর্তমানে তাঁরা আশঙ্কা মুক্ত। তাদের প্রয়োজনীয় চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। কয়েকদিন বিশ্রামে থাকলে ঠিক হয়ে যাবে বলে তিনি জানান।
’গাঙচিল’ ছবির পরিচালক নঈম ইমতিয়াজ নেয়ামুল বলেন, ফেরদৌস-পূর্ণিমাকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। এখন দুজনকে কোম্পানীগঞ্জ সেন্ট্রাল হাসপাতালে নেয়া হয়েছে। শরীরের আঘাত কতটা গুরুতর সেটা জানার জন্য দুজনকে এক্সরে করা হয়েছে। তারপর বলতে পারব! বেশি সমস্যা হলে শুটিং বন্ধ থাকবে।
ইচ্ছে মত এবং নুজহাত ফিল্মসের প্রযোজনায় নেয়ামুলের ’গাঙচিল’ ছবিটি নির্মিত হচ্ছে সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের উপন্যাস অবলম্বনে। এই ছবিতে আরও অভিনয় করছেন আনিসুর রহমান মিলন, তারিক আনাম খান এবং বিশেষ চরিত্রে কলকাতার অভিনেত্রী ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত।
প্রসঙ্গত, গত ৬ ফেব্রুয়ারি থেকে নোয়াখালী জেলার গাঙচিল কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার ৮নং চর এলাহি ইউনিয়নে ছবিটির শুটিং শুরু হয়েছে এবং চলবে ১২ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত।