নুরুল হক নুর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের (ডাকসু) ভিপি নির্বাচিত হওয়ার একদিন পরেই ফের গ্রন্থাগার ভবনের সামনের একটি গাছে ’নুর চত্বর’ সাইনবোর্ড ঝুলতে দেখা গেছে।
বুধবার (১৩ মার্চ) সকালে ক্যাম্পাসে গেলে নুর চত্বর লেখা ওই সাইবোর্ড ঝুলতে দেখা যায়। ভিপি নুরের নাম থেকেই এই চত্বরের নামকরণ। এতদিন কিছু শিক্ষার্থীর মুখে মুখে নামটি থাকলেও, বিজয়ী হওয়ার একদিন পরেই সাইনবোর্ড ঝুলতে দেখা গেছে।

এর আগে, ২০১৮ সালের ৩০ জুন কোটা সংস্কার আন্দোলনের সময় সংবাদ সম্মেলন করতে এলে নুরের উপর হামলা চালিয়ে ব্যাপক মারধর করা হয়।

নির্যাতনকারীদের হাত থেকে রক্ষা পেতে বিশ্ববিদ্যালয়ের গ্রন্থগারিক জাবেদ আহমদের পা ধরে থাকার একটি ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়। এ ঘটনার পর নুরের প্রতি শিক্ষার্থীদের সহমর্মিতা বেড়ে যায়।

পরের দিন ’বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদ- এর পক্ষ থেকে নুরের রক্তরঞ্জিত কেন্দ্রীয় লাইব্রেরির সামনের চত্বরটির নামকরণ করা হয়েছে ’নুর চত্বর’। সেখানে লেখা ছিল ’ন্যায়ের সংগ্রামের আপসহীন যোদ্ধা, সারা বাংলার ছাত্র সমাজের অবিসংবাদিত নেতা নুরুল হক নুর এক মহান ছাত্র নেতা।’ কিন্তু পরবর্তীতে কে বা কারা সাইনবোর্ডটি সরিয়ে দেয়।

উল্লেখ্য, দীর্ঘ ২৮ বছর পর গত ১১ মার্চ অনুষ্ঠিত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ (ডাকসু) নির্বাচনে ছাত্রলীগ মনোনীত সহ-সভাপতি (ভিপি) প্রার্থী রেজোয়ানুল হক শোভনকে হারিয়ে ডাকসুর ২৫তম ভিপি নির্বাচিত হয়েছেন বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের প্রার্থী ও কোটা সংস্কার আন্দোলনের নেতা নুরুল হক নুর।

সূত্র:সময়ের কণ্ঠস্বর