বাংলাদেশে নির্বাচনের মধ্য দিয়ে নির্বাচিত হয়ে থাকে বাংলাদেশের সরকার প্রধান। বর্তমান সময়ে বাংলাদেশে নির্বাচন কার্য পরিচালনা হচ্ছে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনের মাধ্যমে। এটি একটি ডিজিটাল পদ্ধতি। সংক্ষেপে এই পদ্ধতিকে ইভিএম বলা হয়ে থাকে।সমাজের বিভিন্ন মহল এই পদ্ধতির বিরোধিতা করছে। এই পদ্ধতিতে নানা কারচুপি হয় এমনও অভিযোগ রয়েছে।
ব্যাপক অনিয়মের পরেও ভয়ের সংস্কৃতি ও প্রতিপক্ষের চরম দুর্বলতার কারণে ঢাকার দুই সিটির ভোট আপাত দৃষ্টিতে শান্তিপূর্ণ হয়েছে বলে মনে করে সুশাসনের জন্য নাগরিক (সুজন)। সদ্যসমাপ্ত এ নির্বাচনের মূল্যায়ন ও বিজয়ীদের তথ্য বিশ্লেষণ তুলে ধরতে সোমবার ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে সংবাদ সম্মেলনে এ মূল্যায়ন তুলে ধরা হয়।

প্রতিবেদন তুলে সুজনের কেন্দ্রীয় সমন্বয়কারী দিলীপ কুমার সরকার বলেন, "একটি প্রচার আছে যে, এই নির্বাচন ছিল শান্তিপূর্ণ।আমরা মনে করি, এই শান্তি অশান্তির চেয়েও ভয়াবহ। "ভয়ের সংস্কৃতির কারণে কেউ যদি অন্যায়ের প্রতিবাদ করার সাহস না পায়, তবে সেই অন্যায়ের প্রতিকার পাওয়া দুষ্কর। ব্যাপক অনিয়ম হওয়ার পরেও যদি সেই নির্বাচন শান্তিপূর্ণ হয়, তবে বুঝতে হবে প্রতিপক্ষ এখানে চরম দুর্বল।" নির্বাচনে আওয়ামী লীগ ছাড়া অন্য রাজনৈতিক দলগুলোর অবস্থান ছিল দুর্বল এবং নানা অনিয়ম হলেও বিএনপিকে প্রতিবাদী হতে দেখা যায়নি বলে প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়।

উল্লেখ্য, সাম্প্রতিক অনুষ্ঠিত হয়েছে ঢাকা সিটি নির্বাচন। এই নির্বাচনে প্রতিদন্ধিতা করেছে অনেক রাজনৈতিক দল। এবং ঢাকা সিটি নির্বাচনে সকল কেন্দ্রে ব্যবহার হয়েছে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন। এবং এই নির্বাচনে জয় লাভ করেছে বাংলাদেশের ক্ষমতাসীন রাজনৈতিক দল আওয়ামীলীগ। তবে এই নির্বাচন ব্যাবস্থা নিয়েও রয়েছে নানা অভিযোগ।