বাংলাদেশ একটি স্বাধীন ও গনতান্ত্রীক দেশ। স্বাধীনতার ৪৮ বছর পার করে পর্দাপন করে ৪৯ বছরে। এই ৪৮ বছরে বাংলাদেশে গড়ে উঠেছে অসংখ্য রাজনৈতিক দল। এই সকল দলের মধ্য জাতীয়তাবাদী বিএনপি একটি প্রথম সারির দল। বর্তমান সময়ে দলের অবস্থান ভাল নয়। অনেক ধরনের রাজনৈতিক মামলার স্বীকার হয়ে দলীয় নেতাকর্মীরা কারাগারে বন্দী জীবন যাপন করছে। এমনকি দলের চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া ও কারাগারে বন্ধী। আজ তার এই বন্ধী জীবনের দুই বছর পূর্ন হয়েছে।
সরকারের উদ্দেশ্যে হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে বিএনপির ভাইস-চেয়ারম্যান ও কৃষকদলের আহবায়ক শামসুজ্জামান দুদু বলেছেন, কথা একটাই, যদি সোজা আঙ্গুলে ঘি না উঠে তাহলে আমরা আঙ্গুলটা বাকা করবো। আপনাদেরকে আর সময় বেশি দেবো না এখন ও সময় আছে বলি মিথ্যা মামলায় কারাবন্দি দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে ছাড়েন, ছাড়েন, ছেড়ে দেন। অনুরোধ করছি। এ সময় দলীয় নেতাকর্মীদের উদ্দেশে তিনি বলেন,আন্দোলনে রাজি আছেন নেতাকর্মীরা হ্যাঁ সূচক উত্তর দেন।

বিএনপির এই শীর্ষ নেতা বলেন, ৩৫ হাজার মামলায় ২৭-৩৭ লাখ আসামি। গত ২০০ বছরের মধ্যে ব্রিটিশ পাকিস্তান এবং বাংলাদেশের ৪৮ বছরের মধ্যে এরকম ঘটনা নাই যে গণতন্ত্রের রাষ্ট্রে ৩৫ হাজার মামলায় ২৭-৩৭ লাখ আসামি। নেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে মিথ্যা অভিযোগে জোর করে গায়ের জোরে জেলে রাখা হয়েছে। তিনি বলেন, এখানে(সমাবেশ স্থলে) ২ জন মেয়র, জনতার মেয়র আছেন সমাবেশের এই জনতা স্বীকার করে নিচ্ছে তারা হচ্ছে জনতার মেয়র।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা উদ্দেশে তিনি বলেন, শেখ হাসিনা আপনি তো বাহিরে ছিলেন। ইলেকশনের দিনে ভোট দিতে গিয়ে আপনি নৌকায় ভোট চাইলেন। আর আমার নেত্রীকে জেলখানায় রেখেছেন। এই সময়ে সমাবেশের জনগণ এই সরকারকে ভোট চোর, ভোট চোর বলে স্লোগান দেন। তখন দুদু বলন, ভোট চোর, ভোট চোর। টাকা চোর, টাকা চোর। এরা হচ্ছে (আ.লীগ) লুটেরা।
ছাত্রদলের সাবেক এই সভাপতি বলেন, এখনও আন্দোলন দেখেন নাই। দরকার হলে কারো কাছে আমরা আবেদন নিবেদন কিছুই করবো না। জনতাকে সঙ্গে নিয়ে প্রয়োজন বোধ করলে বেগম জিয়াকে নিয়ে আসবো। আমরা মওলানা ভাসানীর উত্তরসূরী, আমরা জিয়াউর রহমানের উত্তরসূরি, আমরা বেগম খালেদা জিয়ার উত্তরসূরী।

তিনি বলেন, আপনারা ইশরাকের সঙ্গে পারেন না, তাবিধের সঙ্গে পারেন না। পুলিশ বলেন, সরকার বলেন, প্রশাসন বলেন বিএনপি মাঠে ছিলো না। বিএনপির সব জায়গায় ছিলো এখনও আছে, ভবিষ্যতেও থাকবে। কিন্তু ভোট কেন্দ্রে ছিল চোর- ডাকাতরা। এখন এখান থেকে প্রতিজ্ঞা করে যাবো বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্তি না করে ঘরে ফিরবো না। এর আগে বিএনপির চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে বিএনপির সমাবেশ আনুষ্ঠানিকভাবে শুরু হয় দুপুর সোয়া ২ টায়। ওলামা দলের সদস্য সচিব হাফেজ মাওলানা নজরুল ইসলামের কোরআন তেলাওয়াতের মধ্য দিয়ে সমাবেশ আনুষ্ঠানিকভাবে শুরু হলেও বেলা ১১টা থেকেই খণ্ড খণ্ড মিছিল নিয়ে সমাবেশে যোগ দেন বিএনপি এবং এর অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের হাজারো নেতাকর্মী।

উল্লেখ্য, শামসুজ্জামান দুদু বাংলাদেশের একজন রাজনীতিবিদ। তিনি জাতীয়তাবাদী বিএনপি দলের সঙ্গে যুক্ত। তিনি ছাত্র জীবন থেকে রাজনীতির সাথে যুক্ত। তিনি এই ক্ষমতাসীন রাজনৈতিক দলের বেশ কয়েকটি গুরুত্ব পূর্ন পদে দায়িত্ব পালন করেছেন। এবং বর্তমান সময়ে তিনি বিএনপির ভাইস-চেয়ারম্যান ও কৃষকদলের আহবায়ক হিসাবে দায়িত্ব পালন করছেন।