একাদশ জাতীয় নির্বাচনে জাতীয় ঐক্যফ্রণ্টের তিনটি স্লোগান নির্ধারণ করা হয়েছে। এগুলো হলো ’আপনার একটা ভোটে দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি হতে পারে,’ ’আপনার একটি ভোটে দেশে গণতন্ত্র ফিরে আসবে’ ও ’পরিবর্তনের লক্ষ্যে ধানের শীষের ভোট।’
মঙ্গলবার রাজধানীর পুরানা পল্টনে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের অস্থায়ী কার্যালয় প্রীতম-জামান টাওয়ারে সমন্বয় কমিটির এক যৌথ সভায় এসব স্লোগান নির্ধারণ করা হয় বলে জানিয়েছেন সমন্বয় কমিটির প্রধান ও বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান বরকত উল্লাহ বুলু।

তিনি জানান, নির্বাচনী আসনভিত্তিক সমন্বয়ক কমিটি গঠনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট। এই কমিটি ধানের শীষ প্রতীকে ঐক্যফ্রন্টের একক প্রার্থীর পক্ষে কাজ করবে।

তিনি বলেন, আগামী ৮ ডিসেম্বরের পরে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থীদের একটি প্রতীকই ধানের শীষ দেওয়া হবে। তারা সবাই মিলে একজন প্রার্থীর পক্ষে কাজ করে বাংলাদেশে একটি নতুন বিপ্লব ঘটাতে চান। শত প্রতিকূলতার মধ্যে তারা তাদের বিজয় ছিনিয়ে আনতে চান। এজন্য একক প্রার্থীর পক্ষে কাজ করতে সারাদেশে আসন ভিত্তিক ঐক্যফ্রন্টের সমন্বয়ন কমিটি গঠনের জন্য সিদ্ধান্ত নিয়েছি। এই সমন্বয় কমিটির মাধ্যমে ভোট হবে।

বুলু বলেন, চূড়ান্ত তালিকা প্রকাশের আগেই অর্থাৎ শিগগিরই এই কমিটি গঠন করা হবে। এর জন্য প্রতিটি জেলায় চিঠি পাঠিয়ে দিয়েছি আসন ভিত্তিক দ্রুত কমিটি করতে।

তিনি জানান, এবারের নির্বাচনে তাদের নির্ধারিত তিনটি স্লোগানকে নিয়ে সারাদেশে ছড়িয়ে পড়তে পারলে বাংলাদেশের মানুষ ভোটের মাধ্যমে মুক্তি পাবেই।

বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা ও ঐক্যফ্রন্টের সমন্বয় কমিটির সদস্য আবদুস সালামের সভাপতিত্বে বৈঠকে কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের হাবিবুর রহমান খোকা, গণফোরামের আওম শফিক উল্লাহ, রফিকুল ইসলাম পথিক, নাগরিক ঐক্যের মমিনুল ইসলাম, শহিদুল্লাহ কায়সার, জনদলের গোলাম মওলা চৌধুরী, বিকল্পধারার শাহ আহমেদ বাদল প্রমূখ নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

সূত্র:সমকাল/বিডি২৪লাইভ